কার জন্য

অধীর আগ্রহে উন্মত্ত হয়ে থাকি
ভরা পূর্ণিমার জন্য
কোথায় সে পূর্ণিমা
কোথায় সে তুমি..
কুয়াশাচ্ছন্ন ধূসর এ জীবন
তৃষ্ণার্তই থেকে গেল
আজন্ম লালিত চিরকাংখিত
কয়েকটি শব্দগুচ্ছের জন্য..
নি:সঙ্গ ভালোবাসা
বিষন্ন মনে আকাশের কাছে
নিজেকে বিলিয়ে দেয়া
বেদনার্ত রাতের ক্রন্দন হাজারো স্বপ্ন
অসহায় কষ্টনীল হয়ে থাকি
শুধু কি তারই জন্য…

তুমি আমি

আমি যেন ফড়িং
এ ডাল ও ডাল ঘুরে ফিরি
দিইনা ধরা
ভয়ে ভীষণ আতংকে
জানি কুতসিত বড় মাথার
আমায় কাছে ডাকবেনা
ভালোবাসবেনা..
যদি ধরেই ফেলো
লেজে সুতো লাগাবে
ডানা দু’টো ছিড়ে দেবে
আনন্দে নয়তো উল্লাসে..

তুমি যেন প্রজাপতি
সুশ্রী দেহপল্লব তোমার
সবাই তোমায় ভালোবাসে
তোমার দু’ডানায়
আদর সোহাগ দিয়ে
সুখ অনুভব করে
সুখের প্রতীক ভেবে
ঠাঁই দেয় হৃদয়ে
নিজের অপরূপতায়
আরো অহংকারী হও তুমি
উল্লাসে নয়তো সুখে..

যদি বুঝে থাকো

সাগরের গর্জন বুকে রেখেছি
হৃদয়ের ব্যাকুলতা বোঝাবো বলে
আকাশ থেকে প্রেম নিয়ে এসেছি
ভালোবাসবো বলে
হিমালয় পেরিয়ে যাবো
শুধু তোমার চোখে
অনন্তকাল চেয়ে থাকবো বলে…

জীবনের পূর্ণতা

তোমাকে কাছে পাবার
আগে যে জীবন ছিল
পাপের ছোঁয়া ছিল সত্য
ক্ষণিকের আনন্দ ছিল
ভালোবাসার হাহাকার ছিল..
শুধু ছিলনা
জীবনকে উপলব্ধি করার
সুস্থ চিন্তা চেতনা
যেন মুখ থুবড়ে পড়েছিলাম
অন্ধকার কোন গহ্বরে
আর এখন..
এখন শুধু মনে হয়
তুমি আমার কেবলি আমার
পেয়ে তাই হারাবার ভয়ে
আমি আত্মহারা সারাক্ষণ
আমি যে কতটা অনুভবতায়
গেঁথে যাই শব্দমালা ভালোবাসার
সে ভাবনাকে চিড়ে দিয়ে
যদি চলে যাও একা ফেলে
অপূর্ণ জীবনের পূর্ণতা
দেখা হবেনা কখনো আর…

জীবন যখন

(ছোট্ট)
এমন একটা বয়স ছিল
কার্টুন যখন প্রিয় ছিল
চঞ্চল শৈশব ছিল
থান্ডারক্যাট্‌স, ক্যাপ্টেন প্লানেট
টম এন্ড জেরী আর ডিজনী
ভালোলাগার মুহুর্ত ছিল।
..
(কৈশর)
এমন একটা বয়স ছিল
চন্দ্রকান্তা প্রিয় ছিল
উচ্ছল কৈশর ছিল
স্পেল বাইন্ডার অ্যাডভেঞ্চার
আর উপন্যাসে কৌতুহল ছিল।
..
(তারুণ্য)
এমন একটা বয়স ছিল
প্রচন্ড আবেগী মন ছিল
নানা রঙে মন রাঙ্গাবার
বড় বেশী ইচ্ছে ছিল।
..
(এখন)
এ কোন বয়স এলো
মিছে সবই পিছে পড়ে গেল
কবিতায় দুর্ভিক্ষ এলো
সব কামনা-বাসনা ঘুঁচে গেল
জীবনে অর্থের প্রয়োজন এলো
কাজে ভালোলাগা এলো।

বোঝেনা কেউ

যখন তুমি কাছে থাকো
স্বপ্নিল পৃথিবী যেন
সুখে ভরে উঠে..
সকল বাস্তবতা পিছে ফেলে
মনে হয় হতাশা বলে কিছু নেই
কোন চাওয়া পাওয়া আশা নেই
পূর্ণতায় কানায় কানায় ভরা
হৃদয় থেকে উপচে পড়ে প্রেম
কি যে পরম পাওয়া
কি যে ভালোলাগা-ভালোবাসা
বোঝেনা তো কেউ…

অভিমান

হৃদয় জুড়ে জড় নিশ্চল অভিমান
তোমায় যত খুজি হৃদয়ের সীমানায়
স্বপ্নগুলো বারবার পথ হারায়
যেন কল্পনার রং মেখে
যে স্বপ্নে নিশিদন পার হয়
অনুভুতির তীব্রতায় সুগভীর স্বপ্ন
আর আমার আদিম ভালোবাসা
আমাকে নিয়ত কাঁদায়..
হৃদয় মাঝে যে প্রদীপ
আলো জ্বলেনি কখনও
তুমি এসে ভালোবেসে
সে প্রদীপ দিয়েছো জ্বালায়ে
অজস্র এ স্মৃতিগুলো মোর
তোমাকে চিতকার করে বলতে চায়
যে স্বপ্নে এসেছো তুমি
তাকে ফেলে যেওনা কখনো…

বৃষ্টি ঝড়া

উত্তাল এই রাতে
কত না স্বপ্ন বুনি
হৃদয়ের সীমানায় প্রতিক্ষণ
রোমাঞ্চিত অনুভবে
উত্তাল বাতাসের বেগে
তোমাতে হারাই..
যখনই বৃষ্টি ঝড়ে
প্রাণচঞ্চল হয়ে উঠি
শো-শো শব্দে
ঝড়ো বাতাসের সুরে-ছন্দে
অবিরাম তোমাকেই খুজে যাই..

যন্ত্রণা

নিলাভ ল্যাম্পটির দিকে চেয়ে থাকতাম
কত পাগলাটে নি:সঙ্গ রাত্রি
এভাবেই একসময় ঘুমিয়ে পড়তাম
কখনও জেগে দেখি
জ্বলেই আছে
যেন যন্ত্রণার ক্ষতে
শান্তনার রসিক পার্টনার..

একা-২

(১)
আজ আকাশটা চেয়ে দেখ
মনে হয়
আমার নিয়তি লেখা
অসীম শূন্যতায়
তার হৃদয় কিনার আঁধারে ঢাকা
চাঁদটা নেই
তারাগুলোও একা একা
গভীর রাতে চাঁদের সাথে আমার মিতালি
শুধুই নিরবতা..

(২)
মনে হয় প্রতীক্ষা প্রহর শেষে
মিলনের আভা
চাঁদ সুরুজের নিয়তিতে
অবিরাম অন্যকে খোঁজা
হৃদয় উপচে গড়িয়ে
ধীরে ধীরে ভালোলাগা
বাঁধ বাঙ্গে তখনি
মাঝে মাঝে চাঁদ সুরুজের
দেখা হয় যখনি