প্রোগ্রামার হতে ৫টি চাঞ্চল্যকর টিপস

প্রোগ্রামিং শেখা খুবই সহজ যদি যথাযথ পদ্ধতিতে শেখেন। এসব কৌশল না জানার কারনে অনেকেই কিভাবে শুরু করা উচিৎ বুঝতে পারেন না। এরুপ কিছু টিপস নিয়ে আমাদের এই বিশেষ আর্টিকেল

 

১. যখন শিখবেন তখনি প্রাকটিস : ধরুন আপনি এখন for লুপের টিউটোরিয়াল পড়লেন তো এখনই এ সংক্রান্ত ছোট ছোট প্রবলেম google থেকে বের করে নিজে নিজে সমাধান করুন যেমন সংখ্যার পিরামিড বানান কিংবা sql এর WHERE, Sub Query পড়লেন তো টেবিল থেকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মান বের করার চেষ্টা করুন ইত্যাদি।

 

২. সিএমএস পরে বরং raw কোড আগে : যেকোন প্রোগ্রামিং শিখতে চান না কেন আগে সেই ল্যাংগুয়েজ দিয়ে একটা নিজে নিজে প্রজেক্ট বানান। অবশ্যই সিএমএস দিয়ে নয় বরং raw কোড লিখুন। পিএইচপি শেখার সুত্র হচ্ছে “বসে যান এবং একটা প্রজেক্ট তৈরী করুন”।

 

৩. মানসিক স্থিরতা (Mental Stability) : প্রোগ্রামিং শেখার পূর্বশর্ত হল ধৈর্য্য। লম্বা সময় একটা সমস্যার পিছনে মনযোগ ধরে রাখতে পারতে হবে। ধরুন দুটি ছেলের একজন average talent তবে মানসিক স্থিরতা আছে আরেকজন খুব talent তবে brain scattered মানে মানসিক স্থিরতা নেই। এখন দুজনকেই একটি math solve করতে দিলে কে আগে সমাধান করবে? অবশ্যই যার মানসিক স্থিরতা আছে। সন্দেহ হলে পরীক্ষা করে দেখুন।

মানসিক স্থিরতা আছে কিনা কিভাবে বুঝবেন?
======================
ধরুন প্রোগ্রামিংয়ের কোন বই বা টিউটোরিয়াল পড়ছেন এবং ১ ঘন্টা পড়াকালীন অবস্থায় অনেকবার ফেইসবুক, অনলাইন পত্রিকা ঢুকেছেন কিংবা বিপরীত লিঙ্গের সামনে কিভাবে নিজেকে উপস্থাপন করবেন এগুলি চিন্তা করেছেন, তাহলে নিশ্চিত আপনার মানসিক স্থিরতার অভাব বিদ্যমান।

যেভাবে মানসিক স্থিরতা আনতে পারেন:
===========================
অনেক পদ্ধতি আছে তবে একটা কার্যকরী নীতি বিয়ে করুন। বিয়ে করলে মানসিক স্থিরতা আসে এটাও বহুল প্রচলিত। বিবাহিতদের লৌকিকতা কম থাকে এবং এজন্য তাদের আউটপুট বেশি হয়। সম্ভবত এজন্য অনেক সফটওয়ার ফার্মে “বিবাহিত হতে হবে” এমন শর্ত জুড়ে দেয়।

৪. ভাল প্রোগ্রামারদের সংস্পর্শে আসুন : প্রোগ্রামারদের সাথে ওঠাবসা করুন, তাদের কথা শুনুন, তাদের প্রোফাইল দেখুন। এজন্য বিভিন্ন সময় এমনসব কর্মশালা বা কনফারেন্সে যাওয়া ভাল যেখানে বড় বড় বা ভাল প্রোগ্রামার রা লেকচার দেন।

৫. যাদের ব্যাকগ্রাউন্ড CSE নয় : CSE তে পড়েন না এমন কারো যদি প্রোগ্রামিং শেখার আগ্রহ থাকে প্রথমেই অর্থনৈতিক স্বাধীনতা প্রয়োজন। ২-২.৫ বছর কঠোর পরিশ্রম করা লাগতে পারে তবে পকেটে কোন টাকা ঢুকবেনা। ইনস্টান্ট টাকা কামানোর সুযোগ এই জগতে নেই।

Leave a Reply